বুধবার, ২৫শে জুন, ২০১৯ ইং

“নো হেলমেট, নো টোল” কুমিল্লা হাইওয়ে পুলিশের ব্যাতিক্রম উদ্যোগ

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
মার্চ ৪, ২০১৯
news-image

 

জাকির হোসেন হাজারী, দাউদকান্দিঃ
নো হেলমেট, নো পেট্রোল। এমন নির্দেশের কথাই সবাই শুনেছে। কিন্তু এবার নতুন নিয়ম। নো হেলমেট, নো টোল। দুর্ঘটনা থেকে বাঁচতে হেলমেটের ব্যবহারের জন্য প্রতিটি পেট্রোল পাম্পে নিয়ম করা হয়েছিল, এবার হেলমেট না পরলে টোল নেয়া হবে না অর্থাৎ হেলমেট না থাকলে টোলপ্লাজা অতিক্রম করতে দেয়া হবে না। হাইওয়ে পুলিশ কুমিল্লা রিজিওন “নো হেলমেট, নো পেট্রোল” এ ব্যতিক্রম উদ্যোগ গ্রহন করেছেন।

সোমবার দুপুরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহসড়কের দাউদকান্দি টোলপ্লাাজায় যাত্রীবাহি বাস ছাড়া সকল যানবাহনে সচতনতামুলক স্টিকার ও লিফলেট বিতরণ এবং “নো হেলমেট, নো পেট্রোল” লেখাসহ ফেস্টুন টানিয়ে দেন হাইওয়ে পুলিশ।

কুমিল্লা জেলা হাইওয়ে পুলিশ সূত্র জানায়, মোটরসাইকেল আরোহীদের হেলমেট না থাকলে তেলের পাম্পগুলো যেমন জ্বালানি না দেয়ার নির্দেশ রয়েছে, তেমনি এবার “নো হেলমেট, নো টোল” সোমবার থেকে হাইওয়ে পুলিশের এ কার্যক্রম বাস্তবায়ন শুরু করা হয়। ফলে হেলমেট নেই এমন বাইক চালকরা দাউদকান্দি টোলপ্লাজা অতিক্রম করতে পারবে না। এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন হাইওয়ে জেলা পুলিশ সুপার (কুমিল্লা রিজিওন) মোঃ নজরুল ইসলাম।
উপস্থিত যানবাহন চালক ও হেলমেটবিহীন মোটর সাইকেল আরোহীদের পুলিশ সুপার মো.নজরুল ইসলাম বলেন, নিরাপদ সড়ক আমরা সবাই চাই, তাই প্রত্যেকের উচিত আগে নিজে সচেতন হওয়া। যারা মোটারসাইকেল চালান তারাই সবচেয়ে বেশি দুর্ঘটনা কবলিত হয়ে থাকেন। তাই মোটরসাইকেল চালকদেরকে অবশ্যই হেলমেট পরতে হবে।

একটা জীবনের মূল্য অনেক, হেলমেট যারা পরবেন না তাদেরকে টোলপ্লাজা অতিক্রম করতে না দেয়ার বিষয়ে আমরা নির্দেশনা দিয়েছি এটি সচেতনতাবৃদ্ধিতে সহায়ক বলে মনে করি।

মোটরসাইকেল চালক আরিফুল ইসলাম বলেন বলেন , সড়ক দুর্ঘটনায় জীবন বাঁচানোর জন্যই হেলমেটের ব্যবহার। যেটি আমাদের নিজেদেরই নেয়ার কথা- সেই উদ্যোগ নিয়েছে হাইওয়ে পুলিশ। আমরা এই সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানাই। ভবিষ্যতে যেন ড্রাইভিং লাইসেন্স ছাড়া কেউ টোলপ্লাজা অতিক্রম করতে না পারে সেই ব্যবস্থাও করা উচিত।

কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ রহমত উল্লাহ, সিঃ সহকারি পুলিশ সুপার শফিকুল ইসলাম শিকদার, দাউদকান্দি হাইওয়ে থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ, ইলিয়টগঞ্জ হাইওয়ে ফাড়িঁর ইনচার্য মনিরুল ইসলাম ও সার্জেন্ট আলমগীর হোসেন প্রমূখ।

আর পড়তে পারেন