শনিবার, ২৩শে আগস্ট, ২০১৯ ইং

দাউদকান্দিতে সাদা পোষাকধারিদের ধাওয়ার পর ৩ দিন নিখোঁজ,অতঃপর যুবকের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জুলাই ৩১, ২০১৮
news-image

 

জাকির হোসেন হাজারীঃ
কুমিল্লার দাউদকান্দিতে নিখোজের তিনদিন পর খাল থেকে স্বপন মিয়াজী(৪০) নামে এক যুবকের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সোমবার (৩০ জুলাই) সকালে উপজেলার সুন্দুলপুর খাল থেকে ভাসমান অবস্থায় পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে। স্বপন মিয়াজী উপজেলার সুন্দুলপুর গ্রামের মিয়াজী বাড়ীর মৃত ছিদ্দিক মিয়াজীর ছেলে।

এলাকাবাসী ও নিহতের স্বজনরা জানান, গত২৭ জুলাই শুক্রবার রাতে স্বপন মিয়াজীকে সুন্দুলপুর বাজার থেকে সাদা পোশাকধারী পুলিশ ধাওয়া করলে দৌড়ে মিয়াজী বাড়ীর পাশে খালের পানিতে লাফিয়ে পড়েন। এরপর থেকে তাকে আর খোজে পাওয়া যায়নি। বিভিন্ন জায়গায় খোজাখোজি করে না পেয়ে ২৯জুলাই তার স্ত্রী রহিমা বেগম দাউদকান্দি মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরী করেন। এর একদিন পর আজ (সোমবার) সকালে খালের কচুরিপানার সাথে ভাসমান লাশ দেখতে পেয়ে এলাকাবাসী স্বপন মিয়াজীর লাশ বলে সনাক্ত করেন। পরে পুলিশকে খবর দিলে তাঁরা এসে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

নিহতের স্ত্রী রহিমা বেগম বলেন, শুক্রবার রাতে দোকান বন্ধ করে ঘরে এসে ভাত খাওয়ার সময় একটা ফোন আসলে না খেয়ে তাড়াতাড়ি বাহির হয়ে যাওয়ার পর আর কোথাও খোজে পাইনি। আজ খালে আমার স্বামীর লাশ ভেসে উঠেছে। কেউনা কেউ তাকে হত্যা করেছে সেতো সাতার জানে, তাইলে পানিতে ডুবে মারা যাবে কেনো।

ধাওয়া করার সময় প্রত্যক্ষদর্শী একই গ্রামের নাহিদুল ইসলাম জানান, আমি ঘরের ভিতর পড়তে ছিলাম। তখন রাত সাড়ে ৮টার মতো হবে। এমন সময় চারজন লোক পুলিশ না সাধারণ লোক তা জানিনা বাশের হাক্কা(সাকু) দিয়ে দৌড়ে আমাদের বাড়ীতে আসে। তাদের আওয়াজ শুনে আমি বাইরে এলে আমার কাছ থেকে লুঙ্গি নিয়ে তাদের একজন খালের পানিতে নেমে কিছুক্ষন পর উঠে আসে এবং দ্রুত চলে যায়।

দাউদকান্দি মডেল থানার উপ-পরিদর্শক মোস্তফা কামাল বলেন, খবর পেয়ে ভাসমান অবস্থা অর্ধগলিত স্বপন মিয়াজীর মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কুমিল্লা প্রেরণ করেছি। এলাকাবাসী যা বলছে, তদন্ত ছাড়া এব্যাপারে কিছুই বলা যাবেনা। স্বপন মিয়াজীর নামে কোন মামলা আছে কিনা জানতে চাইলে না দেখে বলতে পারবো না বলে এ কর্মকর্তা জানান।

আর পড়তে পারেন