বুধবার, ২৫শে জুন, ২০১৯ ইং

মালদ্বীপে পুলিশ ও বিরোধী দলের কয়েক দফা সংঘর্ষ, নেতা কর্মী গ্রেফতার

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
মার্চ ১৭, ২০১৮
news-image
জুয়েল খন্দকার মালদ্বীপঃ

বৃহস্পতিবার বিকালে মালদ্বীপের পুলিশ প্রধান আহম্মেদ সিফান শুক্রবার থেকে আবার অনির্দিষ্ট কালের জন্যে জরুরী আইন জারির করে সকল নাগরিকদের ঘর থেকে বের হতে নিষিদ্ধ করেছিলেন।

কিন্তু বৃহস্পতিবার বিকেল থেকেই মালদ্বীপের রাজধানী সহ সাড়া দেশে শুরু হয় পুলিশ ও বিরোধী দলের দফায় দফায় সংঘর্ষ, পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে “মরিচ গ্যাস, ও টিয়ারস্যাল গ্যাস” সহ লাঠি চার্জ করেন এতে করে, সেই সময়ে অনেকেই গুরুতর ভাবে আহত হন। অনেকেই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সেই সময়ে কয়েক জন সাংবাদিকও আহত হন। বিক্ষোভ কারীদের একটি গাড়িতে পুলিশ আগুন ধরিয়ে দেয়। কিন্তু আসলে বিক্ষোভ কারীদের গাড়ি কিনা সেটা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি, তবে অনেকে জানায় গাড়িটি পার্ক করা ছিল রাস্তার পাশে। বিরোধী দলের আর অসংক্ষ নেতা কর্মী গ্রেফতার করেন পুলিশ গনহারে! তবে কতজন গ্রেফতার করেছেন পুলিশ এখন কোন সঠিক ত কোন তর্থ পাওয়া যায়নি।

গত সপ্তাহে মালদ্বীপের হাড্ডু সিটিতে একটি বাড়ি ভেঙ্গে ফেলে বিরোধী দলের বিক্ষোভ কারীরা, এমন আর ক্ষয়, ক্ষতির হচ্ছে জন সাধারনের। আজকে মালদ্বীপের পুলিশের প্রধান আহম্মেদ সিফান জানায় যে জরুরী আইন অনির্দিষ্ট কালের জন্যে জারীর থাবে।

বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে সকল বাংলাদেশীদেরকে বিনা কোন কারনে ঘর থেকে বের হতে নিষিদ্ধ থাকা সত্যেও বাংলাদেশীদের প্রতিটি রাস্তার মোড়ে মোড়ে দেখা গেছে, বাংলাদেশীরা মানছেনা দূতাবাসের কোন নিষেধাজ্ঞা! বাংলাদেশ দূতাবাস বলেছিল যত দিন না মালদ্বীপের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে না আসে ততদিন পর্যন্ত! যদি কোন বাংলাদেশী কোন সমস্যায় পরে তাহলে তারা যেন মালদ্বীপে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসে যোগাযোগ করেন:- +৯৬০ ৩৩২-০৮৫৯

“সূত্রটি শুরু হয়” গত ৫ ই ফেব্রুয়ারি মালদ্বীপের সুপ্রিমকোর্টের বিচারে, সাবেক প্রধান বিচার প্রতি আব্দুল্লাহ সাঈদ বিরোধী দলের সাবেক প্রেসিডেন্ট নাসিদ ও গ্যাসিম ইব্রাহীম সহ ১২ জন নেতা কর্মীকে বেকসুর খালাস প্রধান করেন, কোন তদন্ত ছাড়াই।

মালদ্বীপের বর্তমান প্রেসিডেন্ট আব্দুল্লাহ ইয়ামিন আব্দুল গাইয়ুম রায়ের পর পরই সুপ্রিমকোর্টে একটি চিঠি পাঠান খালাসের বিষয়টা স্থগিত রাখার জন্যে, এটা পরে তদন্ত করবে বলে। সেই সূত্র ধরেই মালদ্বীপ রাজনীতির অস্থিরতা শুরু হয়।

 

আর পড়তে পারেন