মঙ্গলবার, ২০শে আগস্ট, ২০১৯ ইং

পুলিশ রুখতে সিসি ক্যামেরা!

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
ফেব্রুয়ারি ৮, ২০১৬

cc camaraবগুড়া প্রতিনিধি: সাধারণত অপরাধ রুখতে বা নিয়ন্ত্রণ করতেই ব্যবহার হয়ে আসছে ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরা। বাসা-বাড়ি, অফিস কিংবা গুরুত্বপূর্ণ স্থানে নজরদারি বাড়াতে ইদানিং সিসি ক্যামেরার ব্যবহার বাড়ছে। তবে পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে নির্বিঘ্নভাবে মাদক ব্যবসা চালিয়ে যেতে সিসি ক্যামেরার ব্যবহারের কথা এই প্রথম শোনা গেল।

আর এমন কাণ্ডের মূল হোতা বগুড়ার ধুনট উপজেলা সদরের মাঠপাড়া গ্রামের সুবর আলীর ছেলে ইউসুব আলী (২৫)। যিনি একজন চিহ্নিত সাজাপ্রাপ্ত শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী।

সোমবার দুপুরে কয়েকটি রাস্তার মগডাল থেকে সিসি ক্যামেরাগুলো নামিয়ে এনেছে পুলিশ। এরপর ‘ডিজিটাল’ মাদক ব্যবসায়ী ইউসুব আর তার সহযোগীকে আটক করে।

প্রতিবেশীরা জানায়, দীর্ঘদিন ধরেই মাদক ব্যবসা করে আসছেন ইউসুব আলী। তবে বার বারই ধরা পড়তে হচ্ছিল তাকে। তাই পুলিশ এলাকায় ঢোকার সঙ্গে সঙ্গেই যেন তিনি বুঝতে পারেন এজন্য পুরো এলাকা নিয়ে আসেন সিসি ক্যামেরার আওতায়। পুলিশ বা আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কোনো সদস্য এলাকায় ঢুকলেই তিনি বুঝতে পারতেন। একই সঙ্গে সেই পুলিশ কর্মকর্তাকে শনাক্তও করতেন। সুযোগ বুঝে ঘুষ দিয়ে তার মুখ বন্ধ রেখে কিংবা বশে রেখে নির্বিঘ্নে মাদক ব্যবসা চালাতেন।

ধুনট থানার পরিদর্শক (ওসি, তদন্ত) পঞ্চনন্দ সরকার জানান, ইউসুব আলী চিহ্নিত ও শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী। দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন ধরনের মাদক দ্রব্য বিক্রি করে আসছিল। কিন্তু ঘন ঘন পুলিশি অভিযানের কারণে বিপাকে পড়ে সে। তাই আইন প্রয়োগকারী সংস্থার চোখ ফাঁকি দিয়ে নিরাপদে মাদক ব্যবসার চেষ্টা চালাতে অভিনব কৌশল নেয়। তার বাড়িতে যাওয়ার প্রধান তিনটি রাস্তায় গাছের মগডালে স্থাপন করে ৩টি সিসি ক্যামেরা।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দুপুরে মাঠপাড়া গ্রামে অভিযান চালায় পুলিশ। এসময় মাদক দ্রব্যসহ ইউসুব আলী ও তার সহযোগী মনোয়ার হোসেন জয়কে (২২) আটক করা হয়। মনোয়ার হোসেন জয় ধুনট পৌর এলাকার অফিসার পাড়ার মৃত জসমত আলীর ছেলে।

পরে ইউসুব আলীর স্বীকারোক্তি মোতাবেক তার বাড়ির চারপাশ থেকে ৩টি সিসি ক্যামেরা, একটি মনিটর, একটি টিভি ও ইলেট্রনিক্স সামগ্রী জব্দ করা হয়। এরপর তাদের হাজির করা হয় ভ্রাম্যমাণ আদালতে।

সিসি ক্যামেরা বসিয়ে মাদক ব্যবসা করার অভিযোগে ধুনট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হাফিজুর রহমান আটক দুই ব্যবসায়ীকে এক বছর করে কারাদণ্ডের আদেশ দেন। বিকেলে সাজাপ্রাপ্ত ইউসুব আলী ও মনোয়ার হোসেনকে ধুনট থানা থেকে বগুড়া কারাগারে পাঠানো হয়।

আর পড়তে পারেন