বৃহস্পতিবার, ২২শে আগস্ট, ২০১৯ ইং

বোমার ভিতরে ভালােবাসার ফুল!

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
ফেব্রুয়ারি ৪, ২০১৬

নিউজ ডেস্ক: ইসরায়েল ফিলিস্তিনি সংঘর্ষ থেকে যে তিল পরিমাণ ভালো কিছু বেরিয়ে আসতে পারে তা বোধ হয় কারো কল্পনাতেও ছিলো না। কিন্তু ফিলিস্তিনি এক নারী দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। বছর বছর ইসরায়েল যে গ্যাস বোমা ছুঁড়ে মারে ফিলিস্তিনের দিকে সেই বোমার খোল কুড়িয়ে নিয়ে তাতে সারি সারি ফুল গাছ লাগিয়েছেন এই নারী। প্রত্যেক দিন সেই গাছে যত্ন করে পানি দেন তিনি। বোমার পাত্রে বেড়ে উঠেছে স্বাস্থ্যবান সুন্দর ফুল।

187257_1 2016_02_03_22_35_54_BTcPbWF1HU5YtvlaHdFUg6sQJPs0rX_original 2016_02_03_22_36_37_wVP0CVzMFqYswKR9OSabVxNNxwzAyi_original 2016_02_03_22_37_23_nljzMSBmuN3lQHxVTBqKHDyyY1g6Bm_original 2016_02_03_22_38_01_ptjkLB48iW1PaHzEpvWoDdaUq8LxEK_original 2016_02_03_22_42_07_3VP02jUzXs5h6v2lIwXkJfmdEtHXct_original 2016_02_03_22_42_07_3VP02jUzXs5h6v2lIwXkJfmdEtHXct_original (1)
ছবিতে তার ফুলের যে বাগান দেখা যাচ্ছে সেটা ফিলিস্তিনের পশ্চিম তীরের রামাল্লা শহরের নিকটবর্তী বিলিন গ্রামে অবস্থিত। ঐ গোটা এলাকা জুড়েই চলছে বিবাদ। কারণ ফিলিস্তিনিদের হঠিয়ে ইসরায়েল সেখানে অবৈধ আবাসন স্থাপন করে যাচ্ছে ক্রমাগত। পশ্চিম তীর এবং ইসরায়েলের মধ্যে চলছে ৪৩০ মাইল দীর্ঘ দেয়াল তৈরির কাজ যেটা গোটা পশ্চিম তীরকে আলাদা করে ফেলবে ইসরায়েলের সাথে। ফিলিস্তিনি ঐ নারী তার বাড়ির পাশে যে জায়গায় বাগান করেছেন সেই জায়গায় মূলত এই দেয়াল হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু আদালতে যুদ্ধ করে তিনি দেয়ালের পথ পরিবর্তন করাতে সক্ষম হন।

ইসরায়েল প্রথম থেকেই বলে আসছে যে, এই দেয়াল তার নাগরিকদের রক্ষা করবে ফিলিস্তিনি সন্ত্রাসের হাত থেকে। কারণ দেয়াল নির্মাণের কাজ আরম্ভ হতেই আত্মঘাতী বোমা হামলার মাত্রা কমে গেছে উল্লেখযোগ্য হারে। তবে ইসরায়েল ফিলিস্তিনি সংঘর্ষ আদৌ কমবে কিনা সেটা নিয়ে যতই বাগ বিতণ্ডা হোক না কেন, ফিলিস্তিনি এই নারী ঠিকই করে যাবেন ফুলের চাষ। কারণ পৃথিবীতে সবাই এক না। এখানে কেউ কেউ বোমা মারে, আর কেউ তাতে ফুলের চাষ করে।
উৎসঃ বাংলামেইল