বৃহস্পতিবার, ৭ আগস্ট, ২০২০

লাকসামে জমির বিরোধের জেরে কলেজ ছাত্রকে খুনের অভিযোগ

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জুলাই ৯, ২০২০
news-image

 

লাকসাম প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার লাকসাম উপজেলার মুদাফরগঞ্জ উত্তর ইউপির নগরীপাড়া গ্রামে জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে কলেজ ছাত্র সায়েম হোসেনকে (২২) হত্যার অভিযোগ উঠেছে৷

নিহত কলেজ ছাত্র সায়েম হোসেন মৃত আবদুল কাদিরের ছেলে। তার পরিবার ভূমিহীন হওয়ায়, সে ওই এলাকায় অন্যের বাড়িতে মা ও ছোট ভাইকে নিয়ে বসবাস করতো এবং চাঁদপুরের একটি বিশ্ব-বিদ্যালয় কলেজে ইংরেজী বিষয়ে অনার্স দ্বিতীয় বর্ষে লেখাপড়া করতো।

স্থানীয় একাধিক সুত্র জানায়, গত শনিবার (৪ জুলাই) দুপুরে প্রতিপক্ষ জসিম পাটোয়ারীর ছেলে লিংকন পাটোয়ারী লোক পাঠিয়ে সায়েমকে বাড়ি থেকে ডেকে আনে। নিজ বাড়ি থেকে কিছুদূর আসার পর লিংকন, লিয়ন, লিপনসহ ১৫/২০ জন যুবক সায়েমকে ঘিরে ফেলে বেধম মারধর করে, পরবর্তীতে পাশবর্তী  ডোবায় ফেলে ৷ সায়েমের আত্মচিৎকারে তার স্বজন ও আশে পাশের লোকজন ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছার আগেই লিংকন গং পালিয়ে যায়।  লোকজন মুমর্ষ সায়েমকে উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতাল পরে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার (৭ জুলাই) গভীর রাতে কলেজ ছাত্র সায়েম মারা যায়৷

সূত্র আরো জানায়, টিউশনির টাকায় নিজের পড়ার খরচ ও পারিবারিক ব্যয় বহন করতো এই কলেজ ছাত্র সায়েম ৷ একজন দানশীল ব্যাক্তি তাদেরকে কিছু জমিন দান করে, সেই জমিনের সীমানা নিয়ে বিরোধের জের ধরেই এই হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে৷

এ নিয়ে এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। মৃত সায়েমের মা পারুল বেগম বাদী হয়ে ৬ জনের  নাম উল্লেখ্য করে লাকসাম থানায় অভিযোগ করেন ৷

এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শাহেদুল ইসলাম শাহিন বলেন, মৃত্যুর খবর শুনে তাৎক্ষনিক তাদের বাড়ীতে যাই। থানায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। এখন সেটা আইনি বিষয়, ব্যাপারটা আইনের মাধ্যমে দেখা হচ্ছে।

এ ব্যাপারে লাকসাম থানার অফিসার ইনচার্জ নিজাম উদ্দিন জানান, ঘটনার পর (৬ জুলাই) ছয় জনেন নামে অভিযোগ হয়েছে ৷ পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে ৷ তদন্ত সাপেক্ষে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আর পড়তে পারেন