শুক্রবার, ২২শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং

ব্রাহ্মণপাড়ায় ধর্ষণ মামলার আসামী জামাল হোসেন গ্রেফতার

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৯
news-image

আনোয়ারুল ইসলাম ॥
কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার নন্দীপাড়া গ্রামে কুমিল্লা ব্যুরো পুলিশ অভিযান চালিয়ে ধর্ষণ মামলার আসামী জামাল হোসেন (৩৫) নামের এক মুদি দোকান ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃত জামাল হোসেন ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা সদর ইউনিয়নের নন্দীপাড়া গ্রামের মৃত নূরু মিয়ার ছেলে।

সোমবার রাতে কুমিল্লা ব্যুরো পুলিশের পরিদর্শক (ইন্সপেক্টর) মোহাম্মদ তৌহিদুর রহমান এর নেতৃত্বে উপ পরিদর্শক (এস আই) শাহজাহান, উপ পরিদর্শক (এস আই) নজরুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্স সহ অভিযান পরিচালনা করে জামালকে তার নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা সদর ইউনিয়নের নন্দীপাড়া গ্রামে একটি ভাড়া বাসায় রোকসানা আক্তার (২৯) দুই পুত্র সন্তান নিয়ে দেড় বছর যাবত বসবাস করে আসছিলেন। রোকসানার স্বামী আবু নাসির কর্মের তাগিদে বেশির সময় ঢাকায় থাকেন। রোকসানার ভাড়া বাসার পাশের মুদি দোকান ব্যবসায়ী জামাল হোসেনের দোকান থেকে বিভিন্ন সময়ে সাংসারিক প্রয়োজনীয় খরচ ক্রয় করতেন রোকসানা আক্তার। একপর্যায়ে দুই সন্তানের জননী রোকসানা আক্তার ও মুদি দোকান ব্যবসায়ী জামাল হোসেন পরকীয়ার সংম্পর্ক লিপ্ত হয়। এঅস্থায় জামাল হোসেন বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে স্বামীর অবর্তমানে রোকসানাকে কয়েক বার ধর্ষণ করে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে গত ৯ আগষ্ট রোকসানার স্বামী আবু নাসিরের সঙ্গে রোকসানার বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে। স্বামীর সঙ্গে রোকসানার বিবাহ বিচ্ছেদের পর থেকে রোকসানা আক্তার জামাল হোসেনকে বিয়ের জন্য চাপ প্রয়োগ করলে প্রতারক ধর্ষক জামাল হোসেন রোকসানাকে বিয়ের বিবাহ করবেনা বলে অস্বীকৃতি জানিয়ে ভাড়া বাসা থেকে তাড়িয়ে দেয়ার বিভিন্ন হুমকি ধামকি ভয়ভীতি প্রদান করে। পরে এব্যাপারে রোকসানা আক্তার বাদী হয়ে ১২ সেপ্টেম্বর কুমিল্লা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ট্রাইব্যুনালে ধর্ষক প্রতারক জামাল হোসেনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করে। আদালত উক্ত মামলাটি আমলে নিয়ে ব্রাহ্মণপাড়া থানাকে মামলা রুজু করার নির্দেশ প্রদান করেন এবং পাশাপাশি মামলাটি তদন্ত করার জন্য কুমিল্লা পিবিআইকে বলা হয়।

এ ব্যাপারে কুমিল্লা ব্যুরো পুলিশের পরিদর্শক (ইন্সপেক্টর) মোঃ তৌহিদুর রহমান জানান, আদালতের নির্দেশ পেয়ে সোমবার রাতে উপ পরিদর্শক (এস আই) শাহজাহান ও উপ পরিদর্শক (এস আই) নজরুল ইসলামকে সাথে নিয়ে সঙ্গীয় ফোর্স সহ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ওই অভিযুক্ত জামাল হোসেনের নিজ এলাকা ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার সদর ইউনিয়নের নন্দীপাড়া গ্রামে অভিযান পরিচালা করে তাকে গ্রেফতার করি।

আর পড়তে পারেন