শুক্রবার, ২২শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং

বিমানবন্দরে পিস্তল নিয়ে প্রবেশ: মুখোমুখি ইলিয়াস কাঞ্চন,বরখাস্ত ৫ কর্মী

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
মার্চ ৬, ২০১৯
news-image

বিনোদন ডেস্ক :
পিস্তল বহন করে চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চনের বিমানবন্দরের স্ক্যানিং মেশিন পার হওয়ার ঘটনায় আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে।

এ ঘটনায় বরখাস্ত করা হয়েছে হযরত শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ৫ কর্মীকে।

মঙ্গলবার বিকালে নভোএয়ারের একটি অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটে চট্টগ্রাম যাওয়ার পথে সঙ্গে আগ্নেয়াস্ত্রটি নিয়ে যান নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) আন্দোলনের চেয়ারম্যান চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন।

এ সময় অভ্যন্তরীণ টার্মিনালের প্রথম গেটের স্ক্যানার মেশিনের নজর এড়িয়ে ৯ এমএম পিস্তল আর ১০ রাউন্ড গুলি ব্যাগসহ বিনা বাধায় স্ক্যানিং মেশিন পার হন তিনি।

এ বিষয়ে বিমানবন্দরের প্রথম স্ক্যানিং মেশিনে আমার ল্যাপটপের ব্যাগটা দিয়ে আমি বডি স্ক্যানিং করে দ্বিতীয় স্ক্যানিং মেশিনের দিকে এগিয়ে যাই। তখন আমার হঠাৎ মনে হয়, ল্যাপটপের ব্যাগে আমার লাইসেন্সকৃত নাইন এমএম পিস্তল আর ১০ রাউন্ড গুলি আছে। সঙ্গে সঙ্গে দ্বিতীয় স্ক্যানিং মেশিনে দায়িত্বরত অফিসারদের বিষয়টি অবহিত করি।

তিনি বলেন, প্রথম স্ক্যানিং মেশিনে পিস্তলটি ধরা না পড়ায় আমি আশ্চর্য হয়েছি। প্রথম মেশিন তা হলে কী স্ক্যান করল? মেশিনে ধরাই পড়ল না আমার ব্যাগে অস্ত্র আছে কিনা?

এ বিষয়ে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) মুখপাত্র রেজাউল করিম বলেন, ঘোষণা ছাড়া বিমানবন্দরে পিস্তল নিয়ে প্রবেশের অপরাধে, সিভিল এভিয়েশন ইলিয়াস কাঞ্চনকে গ্রেফতার করতে পারতো। যেহেতু তিনি (ইলিয়াস কাঞ্চন) দেশের একজন সম্মানী ব্যক্তি, তাই তাকে পিস্তল বহনের নিয়মগুলো ব্রিফ করে ছেড়ে দেয়া হয়।

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. মোকাব্বির হোসেন বলেন, বিমানবন্দরের প্রবেশ পথে যে তল্লাশি হয়, সেটি খুব জোরালো নয়। তাই বলে বিষয়টি গুরুত্বহীনও না। মেটালজাতীয় কিছু থাকলে তা অবশ্যই ধরা পড়ার কথা। ইলিয়াস কাঞ্চনের পিস্তলের স্ক্যানিং বিষয়ে তদন্তের পর বলা যাবে। আগ বাড়িয়ে কিছু বলা ঠিক হবে না।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন আব্দুল্লাহ আল ফারুক জড়িতদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করছেন।

উল্লেখ্য, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি বিকালে ঢাকা থেকে ছেড়ে যাওয়া দুবাইগামী বিজি-১৪৭ ফ্লাইটে খেলনা পিস্তল নিয়ে উঠে বিমান ‘ছিনতাইয়ের’ চেষ্টা করেন পলাশ আহমেদ নামে এক যুবক।

সেই ঘটনার রেশ না কাটতেই কীভাবে একজন ভিআইপি আসল পিস্তল নিয়ে বিমানবন্দরের কয়েক স্তরের নিরাপত্তাবলয় ভেদ করে স্ক্যানিং মেশিন পার হয়ে গেলেন সেই আলোচনা এখন মানুষের মুখে মুখে। বিমানবন্দরের গোটা নিরাপত্তাব্যবস্থা নিয়েই এখন প্রশ্ন উঠেছে।

আর পড়তে পারেন