সোমবার, ৪ আগস্ট, ২০২০

বাংলাদেশে যেমন কাটলো যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মিলারের প্রথম বছর

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জানুয়ারি ৩১, ২০২০
news-image

স্টাফ রিপোর্টারঃ
যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মিলার সম্প্রতি বাংলাদেশে তার প্রথম বছর পূর্ণ করেছেন। তাঁর প্রথম বছরটি কেমন কাটল, সে বিষয়ে বাংলাদেশে অবস্থিত যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস একটি ভিডিও বার্তা প্রকাশ করেছে।

বাংলাদেশে কাটানো প্রথম বছরটির কথা স্মরণ করে রাষ্ট্রদূত মিলার বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র ও এই চমৎকার দেশটির মধ্যকার ক্রমবর্ধমান সর্ম্পকের অংশীদার হতে পারায় নিজেকে খুবই ভাগ্যবান মনে হয় আমার। প্রথমবার পৌছে আমি নিজের কাছে অঙ্গীকার করেছিলাম প্রথম ৮ মাসের মধ্যে বাংলাদেশের ৮টি বিভাগ ঘুরে দেখবো। এই দারুণ দেশটির যেখানেই সফর করেছি সেখানেই অসাধারণ, প্রাণবন্ত উদারতা ও সুস্বাগত পেয়েছি। আমার মনে হয় এটি বাংলাদেশের এক অনন্য বৈশিষ্ট্য। রোহিঙ্গা সংকটের ক্ষেত্রে, নির্যাতিত একটি জনগোষ্ঠির লাখো সদস্যের জন্য আপনারা সীমান্ত ও হৃদয় খুলে দেওয়ার মাধ্যমে যে উদারতা ও সহমর্মিতা দেখিয়েছেন তা গোটা বিশ্বের জন্য দৃষ্টান্ত স্বরূপ।

তিনি আরো বলেন, প্রতিদিন যে সব চমৎকার মানুষের সাথে আমার দেখা হয় সফল হওয়ার জন্য তাদের আবেগ, সৃজনশীলতা ও দৃঢ়সংকল্প আমাকে অনুপ্রাণিত করে। আপনারা এদেশের সেরা প্রতিনিধিত্ব করেন। বাংলাদেশ, ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চল তথা বিশ্বের জন্য এক উজ্জ্বল ভবিষ্যতের অঙ্গীকার আপনারা। কলকারখানা,দোকানপাট, খেত-খামার যেখানেই আমি গিয়েছি দেখেছি কর্মীদের দৃঢ়তা । নিজেদের পরিবার আর দেশের জন্য আরও সুন্দর এক আগামীর জন্য কাজ করে যাচ্ছেন তারা।

তিনি বলেন, এ দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে তরুণ ছেলেমেয়েরা লেখাপড়া করে যাচ্ছে নভোচারী, প্রকৌশলী ও চিকিৎসক হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে। যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের ব্যবসায়ী নেতা ও উদ্যোক্তারা বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বৃদ্ধি এবং জ্বালানি ও প্রযুক্তি সরবরাহ করার লক্ষ্যে অংশীদারিত্ব গড়ে তুলছেন। আমি এক উজ্জ্বল ভবিষ্যত দেখতে পাই। অন্য যে কোন স্থানের চেয়ে বাংলাদেশেই যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত হতে পচ্ছন্দ করবো আমি।

আর পড়তে পারেন