সোমবার, ১৭ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং

বশেমুরবিপ্রবিতে সাংবাদিক হয়রানি ও লাঞ্ছনার বিচার চেয়ে কুবিতে মানববন্ধন

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৯
news-image

কুবি প্রতিনিধিঃ
বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও দ্যা ডেইলী ক্যাম্পাসের প্রতিনিধি ফাতিমা তুজ জিনিয়ার বিরুদ্ধে সাময়িক বহিষ্কারের নাটক সাজিয়ে হয়রানি এবং আলোকিত বাংলাদেশের প্রতিনিধি শামস জেবিনের উপর ভিসি বাহিনীর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত সাংবাদিকদের সংগঠন ‘কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি(কুবিসাস)’। বৃহস্পতিবার দুপুর ১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু ভাস্কর্যের পাদদেশে এ প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক তানভীর সাবিকের সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য দেন সাংবাদিক সমিতির সভাপতি জাহিদুল ইসলাম, যুগ্ম-সম্পাদক আবু বকর রায়হান, অর্থ সম্পাদক মেহেদী হাসান মুরাদ, দপ্তর সম্পাদক শাহাদাত বিপ্লব, সদস্য নাজমুল সবুজসহ বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকের সাংবাদিক এবং সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এসময় সাংবাদিক সমিতির সদস্য, সহযোগী সদস্য এবং বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা জিনিয়াকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাময়িক বহিস্কার ও হয়রানির ঘটনায় প্রশাসনকে নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা, শামস জেবিনসহ অন্য সাংবাদিকদের ওপর হামলা ও হয়রানির বিচারসহ এ ঘটনায় জড়িত প্রশাসনের কর্তাব্যক্তিদের শাস্তি নিশ্চিত ও দেশের ক্যাম্পাসগুলোতে স্বাধীন সাংবাদিকতার পরিবেশ নিশ্চিতের দাবি জানান।

এসময় বক্তারা বলেন, ‘একটি বিশ^বিদ্যালয়ের প্রধান কাজ কি?- এই   স্ট্যাটাসের জেরে বহিস্কার করা হাস্যকর। দূর্নীতি না করলে সে বিশ^বিদ্যালয়ের ভিসির ভয় কিসের?। একটি গণতান্ত্রিক দেশে বশেমুরপ্রবির উপাচার্য ক্যাম্পাসে স্বৈরাচারীভাবে প্রশাসন চালাচ্ছে।’ সমাবেশে বক্তারা বশেমুরবিপ্রবির উপাচার্যের পদত্যাগ দাবি করেন।

সাংবাদিক সমিতির সভাপতি তার বক্তব্যে বলেন, ‘শুধু বঙ্গবন্ধু বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়েই নয়, প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়েই ক্যাম্পাস সাংবাদিকরা প্রশাসনের হাতে এমন হয়রানির শিকার হচ্ছে। স্বেচ্ছাচারী গোপালগঞ্জের উপাচার্যকে এ ঘটনার জন্য জনসম্মুখে ক্ষমা চাইতে হবে এবং বিনা অপরাধে শাস্তিপ্রাপ্তদের বহিস্কারাদেশ তুলে নিয়ে এ ঘটনার সাথে জড়িতদের বিচারের আওতায় আনতে হবে।’

আর পড়তে পারেন