মঙ্গলবার, ১৮ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং

নবীনগর পৌরসভা নির্বাচন, কে হচ্ছেন পৌর পিতা?

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
অক্টোবর ১৪, ২০১৯
news-image

 

মো. দেলোয়ার হোসেন, নবীনগরঃ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর পৌরসভার নির্বাচনে ভোট গ্রহণ চলছে। সকাল নয়টা থেকে দুপুর ২টা নাগাদ সবকটি কেন্দ্রে ভোটারের ঢল লক্ষ্য করা গেছে। তবে একাধিক কয়েকটি কেন্দ্রে ইভিএম মেশিনে সমস্যা দেখা দেয়ায় বিপত্তি দেখা দেয়।

নবীনগর পশ্চিম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে কথা হয় পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আরিফুল আমীনের সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘গত ১০ বছরেও আমি এমন উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট হতে দেখিনি। সকাল থেকেই ভোটারের বেশ উপস্থিতি।’
নির্বাহী অফিসার রাজকুমার বিশ্বাস বলেন, ‘ইভিএম এ আগ্রহ থাকায় ভোটার উপস্থিতি খুব বেশি’। ভোটের নম্বর নিয়ে ভোটারের অসচেতনতার কারণে ভোট গ্রহণ দেরি হচ্ছে বলে তিনি দাবি করেন।

আওয়ামী লীগ ও বিএনপি’র জন্য আজকের ভোট মর্যাদার লড়াই হিসেবে উপনীত হয়েছে। যদিও বড় এই দুই রাজনৈতিক দলেই নানা ধরণের সমস্যা রয়েছে।
সম্প্রতি হওয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদ হারানোর পর পৌরসভার মেয়র পদটি ধরে রাখার চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে বিএনপি’র জন্য।

 

অন্যদিকে প্রথমবারের মতো মেয়র পদটি বাগিয়ে নেয়ার হাতছানি আওয়ামী লীগের সামনে।

তবে সার্বিক বিবেচনায় অনেকটাই এগিয়ে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী। বর্তমান ও সাবেক দুই এম.পির পূর্ণ সমর্থন থাকা এগিয়ে রেখেছে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী অ্যাডভোকেট শিব শংকর দাসকে। একই সঙ্গে বিএনপি ঘরনার ফারুক আহমেদও শেষ মুহুর্তে এসে শিব শংকরকে সমর্থন দেয়ায় এগিয়ে থাকাটাকে আরো বেশি সমৃদ্ধ করলো। দলের প্রার্থীর বাইরেও বিএনপিতে আরো দুইজন ‘শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী’ লড়ছেন মেয়র পদে, যা পিছিয়ে রেখেছে বিএনপিকে।

এদিকে স্থানীয় সংসদ সদস্য এবাদুল করিম বুলবুল আচরণবিধি লংঘন করে দলের প্রার্থীর পক্ষে প্রকাশ্যে কাজ করার অভিযোগ এনে অন্য প্রার্থীরা নির্বাচন নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন। যদিও সংসদ সদস্য এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

পৌর নির্বাচনে মোট ৩৬ হাজার ৩৬৪ ভোটার এবার তাঁদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। ১৯৯৯ সালে প্রতিষ্ঠিত এ পৌরসভার এটা দ্বিতীয় নির্বাচন। মেয়র পদে জন ১১ জন, কাউন্সিলর পদে ৬৩ জন ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ১৪ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

তীব্র গরমকে উপেক্ষা করে ভোট দিতে আসা হাজার হাজার ভোটারদের তৃষ্ণা মেটাতে এক বৃদ্ধা নিজ দায়িত্বে কলস কাঁধে নিয়ে পানি খাওয়াতেও দেখা গেছে।

এদিকে ব্রা‏হ্মণবাড়িয়া জেলায় পৌরসভা পর্যায়ে এই প্রথম ইভিএম পদ্ধতিতে নবীনগর পৌরসভায় ভোট গ্রহণ পর্যবেক্ষনে ছুটে আসেন ব্রা‏‏হ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খান, পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাসুম সহ সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।

আর পড়তে পারেন