সোমবার, ১৭ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং

নবীনগরে লীজের জায়গা দখল নিয়ে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, পুলিশের লাঠিচার্জ

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
আগস্ট ২৯, ২০১৮
news-image

মো. দেলোয়ার হোসেন, নবীনগর;
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর সদর বাজারের লঞ্চঘাটের সামনে একটি লিজের জায়গা আদালতের রায়ের মাধ্যমে দখলমুক্ত করাকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষ মুখোমুখি অবস্থান নেয়ার এক পর্যায়ে দুই পক্ষের লোকজনের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আতংকিত হয়ে আশপাশের সকল দোকানপাট বন্ধ হয়ে যায়। পরে পুলিশ এসে কয়েক দফা লাঠিচার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

১৯৯৪ সালে ২৪৬০ দাগে সরকারি খাস জায়গাটি লিজ এনে দোকানপাট স্থাপন করে ব্যবসা করে আসছেন উপজেলার কনিকাড়া গ্রামের পিতা মৃত আবুল বাশারের পুত্র আফছারুল বাশার। অপর দিকে লঞ্চঘাটের সামনের ২৪৬০ দাগের ৮শতক জায়গা নিজস্ব মালিকানা দাবী করে আদালতে মামলা করেন উপজেলার পৌর সদর এলাকার মৃত চাঁন মিয়ার পরিবার। দীর্ঘ সময় এই জায়গা নিয়ে চলে পাল্টাপাল্টি মামলা।

মৃত চাঁন মিয়ার ছেলে হিমেল আদালতের রায় নিয়ে মঙ্গলবার ওই জায়গা দখল করতে গেলে লীজ গ্রহীতাদের বাধাঁর সম্মুখীন হয়। লীজ গ্রহিতারা ওই রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করা আছে দাবী করে দখলে বাঁধা দেয়। ওই দাগের ৮ শতক জায়গায় নবীনগর লঞ্চঘাটের শতবছরের পুরানো রাস্তা ও নবীনগর শহর রক্ষা বাঁধ সহ জেলা পরিষদের ডাকবাংলো রয়েছে বলে দাবী করেন নবীনগর পৌরসভার মেয়র মোহাম্মদ মাইনুউদ্দিন আহম্মেদ ও জেলা পরিষদের সদস্য হাজী বোরহানউদ্দিন আহম্মেদ। তারা উভয় পক্ষকে শান্ত থাকার আহব্বান জানিয়ে বিষয়টি নিয়ে সামাজিক ভাবে মীমাংসা দেওয়ার কথা বলে চলে আসার পরই একপক্ষ দোকানে তালা দিতে গেলে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

এ ব্যাপারে নবীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ আসলাম সিকদার বলেন, আদালতের রায়কে সম্মান জানাই কিন্তু এ রায় বাস্তবায়ন করতে গেলে আইন শৃংখলা অবনতি ঘটার আশংকায় রয়েছে বিধায় উচ্ছেদ প্রক্রিয়া চালানো যায়নি তবে স্থানীয় নেতৃবৃন্দ বিষয়টি মীমাংসার উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন।

আর পড়তে পারেন