সোমবার, ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং

নগরীতে বিএনপি নেতাকে মারধর করে অপহরণ চেষ্টার অভিযোগ

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
ডিসেম্বর ১২, ২০১৮
news-image

স্টাফ রিপোর্টারঃ
নির্বাচনী গণসংযোগে দলের নেতাকর্মীদের উপর হামলা-মামলা, মারধর এবং হয়রানির অভিযোগ তুলে সংবাদ সম্মেলন করেছেন কুমিল্লা-৬ সদর আসনের বিএনপির প্রার্থী আমিন-উর রশিদ ইয়াছিন।

বুধবার (১২ ডিসেম্বর) বিকেলে কুমিল্লা নগরীর ভিক্টোরিয়া কলেজ সংলগ্ন বিএনপির প্রার্থীর বাসায় এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি জানান, আজ (বুধবার) সকালে কুমিল্লার আদালতে হাজিরা দিতে যাওয়ার সময় প্রবেশ গেইটে কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মাহবুব চৌধুরীর উপর হামলা করেছে আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. মাসুদুর রহমান মাসুদের নেতৃত্বে ১৫-১৬ জন যুবক মাহবুব চৌধুরীকে অপহরণের চেষ্টা করে, বাধা দিলে তাকে ও তার স্ত্রীকে মারধর করে।

হাজী ইয়াছিন আহত নেতা-কর্মীদের ছবি দেখিয়ে বলেন, গত তিনদিনে আসন এলাকার বিভিন্ন স্থানে হামলা চালিয়ে বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের কমপক্ষে অর্ধশতাধিক নেতা-কর্মীকে আহত করা হয়েছে। এসময় বাড়িঘর ও দোকানপাট ভাংচুর এবং মিথ্যা মামলা দিয়ে দলের নেতা-কর্মীদের হয়রানী করা হচ্ছে। তিনি প্রশাসনের নিকট নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ ও লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড সৃষ্টির দাবি জানান। তিনি আরও বলেন, গত ১০ ডিসেম্বর গণসংযোগে নামার পর থেকে কুমিল্লা সিটি এলাকার ২২নং ওয়ার্ডের কচুয়া চৌমুহনীতে, ২১নং ওয়ার্ডের মধ্যম আশ্রাফপুর, ১৩নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ চর্থাসহ নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ডে বিএনপির নেতাকর্মীদের উপর হামলা চালায়। আহত বিএনপি নেতা মাহবুব চৌধুরী জানান, সকাল ১১টার সময় কুমিল্লার আদালতে মামলার হাজিরা দেওয়ার জন্য স্ত্রীসহ তিনি যাচ্ছিলেন। তার গাড়িটি যখন আদালতের প্রবেশ মুখে পৌঁছে তখন ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাসুদের নেতৃত্বে ১০/১৫ জনের একটি দল তার উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এ সময় তার সাথে থাকা প্রায় ৮০ হাজার টাকা, ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। তার স্ত্রী চিৎকার করলে কোর্ট পুলিশ উদ্ধারে এগিয়ে আসেন বলে তিনি জানান।

কুমিল্লা কোর্ট ইন্সপেক্টর সুব্রত ব্যানার্জী বলেন, এ সময় আমি বাইরে ছিলাম। আমি এ বিষয়ে কিছু জানি না।

আর পড়তে পারেন