সোমবার, ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং

দেশে ভদ্রলোক থাকবে না: রিজভী

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
ডিসেম্বর ৫, ২০১৬

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কথা শুনলে গণতন্ত্র তো দূরের কথা দেশে কোনো ভদ্রলোক থাকবে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ।

 

রোববার জাতীয় প্রেস ক্লাবে বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির ৯ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

 

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, ‘আপনাকে দেখে মানুষ কি শিখবে, বিএনপি নেত্রীকে উদ্দেশ্য করে অসভ্য, ছোট লোক ইত্যাদি কথা বলেছেন। আমরা শুনে বিশ্মিত হয়েছি। আমরা কোন দেশে বসবাস করছি, একজন সরকার প্রধানের মুখ থেকে অশ্রাব্য, বিশ্রী, আজেবাজে কথা বের হচ্ছে। এতে গণতন্ত্র দূরে থাক একজন ভদ্র লোকের এদেশে বসবাস করা খুবই মুশকিল।’

 

তিনি আরও বলেন, ‘আপনি (প্রধানমন্ত্রী) যখন বক্তব্য রাখেন আপনার চোখের মধ্যে, মুখের মধ্যে মৃদুমন্দ  ভাব ফুটিয়ে তোলেন জনগণের জন্য। আপনার এ ভাব তো মানুষ জানে। এই ভাবের ভেতরে কি কুটিলতা লুকিয়ে থাকে- এ দেশের মানুষ তার জানে।’

 

সার্চ কমিটি সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী দেশের মানুষকে আর কত বোকা বানাবেন। আপনি বলছেন, এই সার্চ কমিটি আপনি বানাননি। এই কমিটি সার্চ লাইট তো ছিল আপনার কাছে। আপনার পছন্দের লোকগুলোকেই আপনি বসিয়েছেন। সার্চ কমিটিতে বিএনপির বা বিরোধী দলের কোনো নেতা ছিল না।’

 

রিজভী বলেন, ‘দেশের প্রতিটি সরকারি জায়গায় আজকে আওয়ামী লীগ ছাড়া আর কোনো লোক নেই, তাই দেশে কোনো গণতন্ত্র নেই, কথা বলার জায়গা নেই, মিছিল, সমাবেশ করার জায়গা নেই। গণতন্ত্রকে পুলিশের বেরিতে আবদ্ধ করেছে আওয়ামী লীগ সরকার।’

 

তিনি বলেন, ‘জাতীয় নির্বাচন দিয়েই দেশের গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হয়। আর তা তো আপনি বন্ধ করে দিয়েছেন। সংবিধান পরিবর্তন করে নিজের ক্ষমতাকে পাকাপোক্ত করেছেন। আপনার অধীনে নির্বাচনে চতুষ্পদি প্রাণী ছাড়া আর কেউ যেতে পারবে না।’

 

জিয়ার সমাধি সরানো প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী দেশকে গৃহযুদ্ধের দিকে নিয়ে যাচ্ছেন। এ যুদ্ধ শুরু হলে আপনার পুলিশ, র‌্যাব দিয়েও আটকাতে পারবেন না।’

 

সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিমের (বীর প্রতীক) সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ড. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, আবু নাসের মোহাম্মদ রহমতুল্লাহ, কাহির মাহমুদ।

আর পড়তে পারেন