শনিবার, ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং

দেবিদ্বারে দর্জির দোকানে ঈদের ব্যস্ততা

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
মে ৩০, ২০১৮
news-image

 

মো. জামাল উদ্দিন দুলাল:

ঈদকে সামনে রেখে ফ্যাশন সচেতন আর রুচিশীল ব্যক্তিরা ছুটছেন দর্জির দোকানে। আগে ভাগেই নিজেদের পছন্দই জামা-কাপড় বানিয়ে রাখছেন তারা। এ জন্য দর্জির দোকানগুলোতে বেড়েছে ঈদ কেন্দ্রিক ব্যস্ততা। চাঁদ রাতের আগেই ক্রেতাদের হাতে পোশাক তুলে দিতে দিন- রাত কাজ করছেন কারিগররা।

কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার পাড়া মহলা ও বিভিন্ন মার্কেট এর দর্জির দোকানগুলোতে সোমবার দুপুরে ঘুরে পোশাক তৈরির ব্যস্ততা চোখে পড়ে। রোজার প্রথম সপ্তাহেই এই ব্যস্ততা ছিল চোখে পড়ার মতো। অনেকে তৈরি পোশাক কেনায় অভ্যস্ত। এর পাশাপাশি বিভিন্ন উৎসবে পার্বণে দর্জির কাছে ইচ্ছে মতো পোশাক বানানোর রীতি-রেওয়াজ বাঙালির ঐতিহ্যের অংশ।

তাই দর্জির দোকানে ভিড় করছেন সব শ্রেণি- পেশার মানুষই। তবে বরাবরের মতো এবারও তরুনীদের সংখ্যা বেশি। ক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, তারা ভারতীয় টিভি সিরিয়ালের বিভিন্ন চরিত্রের পোশাকের আদল ও ডিজাইনে পোশাক বানাতে চায়। এ জন্য অনেকে ইন্টারনেট থেকে নামিয়ে মোবাইলের মাধ্যমে পছন্দের পোশাকের ছবি নিয়ে অনেকে ছুটে আসছেন তারা। নিজেদের জন্য পোশাকের অর্ডার দিচ্ছেন।

দেখা গেছে, শার্ট- প্যান্টের চেয়ে ছেলেদের বেশি আগ্রহ পাঞ্জাবিতে। মেয়েদেরও পছন্দ সালোয়ার -কামিজ আর লং ফ্রক। সঙ্গে রয়েছে নানা রঙের বোরকা। এটিও এখন তরুনীদের ফ্যাশনের অংশ হয়ে দাঁড়িয়েছে। দর্জিরা বলছেন, ঈদকে ঘিরে তাদের ব্যস্ততা সবচেয়ে বেশি থাকে। প্রথম রোজা থেকেই ঈদের পোশাক বানাতে ক্রেতারা আসতে শুরু করেছেন। দিন গড়াতেই চাপ আরও বাড়বে। উপজেলা মদিনা টেইলার্স’র কার্টিং মাষ্টার মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ক্রেতারা তাদের পছন্দের পোশাক বলেন আমরা তা তৈরি করে দেই।

উপজেলার কালাচাঁন মার্কেট’র জান্নাত টেইলার্স এর কার্টিং মাষ্টার বলেন, আগের মতো এখন আর ক্যাটালগ চাচ্ছে না। তারা তাদের ইন্টারনেট থেকে মোবাইলের মাধ্যমে ডিজাইন নিয়ে আসে তা দেখে পোশাক তৈরি করা হয়।

আর পড়তে পারেন