শুক্রবার, ২২শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং

টাওয়ার হাসপাতালের এ্যাম্বুল্যান্সের অবৈধ পার্কিং, নগরীর লাকসাম সড়কে প্রতিদিনই সৃষ্টি হচ্ছে যানজট

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯
news-image

স্টাফ রিপোর্টারঃ
কুমিল্লা নগরীর লাকসাম সড়কে কুমিল্লা মেডিকেল সেন্টারের (টাওয়ার হাসপাতাল) সামনের সড়কেঅবৈধভাবে এ্যাম্বুল্যান্স পার্কিং করে রাখার কারণে প্রতিদিনই লেগে থাকে যানজট ও বিশৃঙ্খলা। গুরুত্বপূর্ণ সড়ক দখল করে এভাবে অবৈধ পার্কিং নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে নগরবাসী ক্ষোভ প্রকাশ করে আসলেও সমাধান হচ্ছেনা বিষয়টি। এ্যাম্বুল্যান্স একটি জরুরী সেবা ও বিপদের বন্ধু হলেও অবৈধভাবে সড়ক দখল করে যানজট সৃষ্টি করে নগরবাসীর বিরক্তির কারন হয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও বহুবার বিষয়টি ভেসে উঠেছে, সমাধান চাওয়া হয়েছে। শুধুমাত্র ওই বেসরকারী হাসপাতালকে কেন্দ্র করে এ্যাম্বুলেন্স এর সাথে সাথে গড়ে উঠেছে অবৈধ সিএনজি অটোরিক্সা স্ট্যান্ড। তারাও যাত্রী এবং রোগী পরিবহনের জন্য সড়ক ও ফুটপাত দখল করে রেখেছেন। দিনের পর দিন এভাবেই ওই এলাকায় চলছে ট্রাফিক বিশৃঙ্খলা। গতকাল সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সড়কের দুই পাশেই এ্যাম্বুল্যান্স ফেলে রাখা হয়েছে। ঐতিহ্যবাহী কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ডের সামনেও রয়েছে অসংখ্য গাড়ি। গুরুত্বপূর্ণ একটি প্রতিষ্ঠানের সামনের সড়কে এভাবে অবৈধভাবে এ্যাম্বুল্যান্স পার্কিং করে রাখাটা নিয়েও বোর্ড কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মাঝে ক্ষোভ বেড়েছে।

ওই সড়ক দিয়ে প্রায়ই যাতায়াত করেন কুমিল্লার সিনিয়র প্রকৌশলী মেসার্স সরওয়ার এন্টারপ্রাইজের মালিক গোলাম সরওয়ার বলেন, নগরীতে অবৈধ পার্কিং এর কারনে যানজট ও ভোগান্তিতে পড়তে হয়। বিশেষ করে লাকসাম সড়কে সড়কের পাশে সিএনজি অটোরিক্সা এবং এ্যাম্বুল্যান্সের অবৈধ পার্কিংয়ের কারনে ভোগান্তিতে পড়তে হয়।

কুমিল্লা জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য এডভোকেট সংগীতা চক্রবর্তী বলেন, টাওয়ার হাসপাতাল ও ইশ্বর পাঠশালার সামনে সিএনজি অটোরিক্সা গিজগিজ করে। যার কারনে সড়ক বন্ধ হয়ে যানজট সৃষ্টি হয়। ভোগান্তিতে পড়তে হয় আমাদের। বিষয়টি নিয়ে প্রশাসনের নজরদারী করা দরকার। খামখেয়ালী না করে নগরবাসীর স্বার্থে বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে নজরদারীতে আনার দরকার।

কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডের সচিব নূর মোহাম্মদের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, শিক্ষাবোর্ডের সামনে প্রতিদিনই যানজট সৃষ্টি হচ্ছে শুধুমাত্র এই অবৈধ পার্কিংয়ের কারনে। এভাবে সড়কের উপর এ্যাম্বুল্যান্স ফেলে রেখে যানজট তৈরি করা খুবই দু:খজনক। সড়ক এ্যাম্বুল্যান্সগুলো দখল করে রাখে আর ফুটপাত দখল করে রাখেন চালকেরা। শিক্ষাবোর্ডে প্রতিদিনই হাজার হাজার মানুষ সেবা নিতে এসে বিড়ম্বনায় পড়েন। এ্যাম্বুল্যান্স চালকদের মৌখিকভাবে নিষেধ করার পরও তারা বিষয়টি গুরুত্ব দেয়নি। বিষয়টি নিয়ে আমরা প্রশাসনিকভাবে সমাধানের চেষ্টা করবো।

কুমিল্লার ট্রাফিক পরিদর্শক মো: কামাল উদ্দিন বলেন, কুমল্লিা টাওয়ার হাসপাতালের সামনে অবৈধ পার্কিং নিয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে কয়েকবার তাগাদা দেয়ার পরেও বিষয়টি সমাধানের জন্য প্রতিষ্ঠানটি এগিয়ে আসেনি। তারা অন্যায়ভাবে সড়ক দখল করে রাখেন। তাছাড়া, আমরা অভিযানে গেলে এ্যাম্বুল্যান্সগুলো সটকে পড়ে, অভিযান শেষ করে আসতে না আসতেইে আবার সড়ক দখল করে বসে থাকেন। তিনি বলেন, এতো বড় একটি হাসপাতালের পার্কিং ব্যবস্থা খুবই দুর্বল। বিষয়টি নিয়ে আমরা আরো কঠোর হবো।

আর পড়তে পারেন