সোমবার, ৪ আগস্ট, ২০২০

চাঁদপুরের কৃতি সন্তান কৌতুক অভিনেতা দিলদারের ১৭ তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জুলাই ১৩, ২০২০
news-image

 

মাসুদ হোসেন, চাঁদপুরঃ
ঢাকাই চলচ্চিত্রের অন্যতম সেরা কৌতুক অভিনেতা দিলদার। অভিনয়ের মাধ্যমে দর্শকের হাসির খোরাক যুগিয়েছেন দারুণভাবেই। এক কথায়, দেশিয় চলচ্চিত্রের ইতিহাসে কৌতুক অভিনেতা হিসেবে দিলদারের তুলনা তিনি নিজেই। চাঁদপুরের কৃতিসন্তান বাংলা চলচ্চিত্রের কৌতুক অভিনেতা দিলদারের আজ ১৩ জুলাই ১৭ তম মৃত্যুবাষিকী। তিনি ২০০৩ সালের এইদিনে ঢাকায় ইন্তেকাল করেন।

জানা গেছে,কৌতুক অভিনেতা দিলদার চলচ্চিত্র জগতে প্রবেশ করেন ১৯৭২ সালে। মুক্তিপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র কেন এমন হয় এ অভিনয় করার মাধ্যমে। ধীরে ধীরে অপ্রতিদ্বন্দ্বী কৌতুক অভিনেতার আসন দখল করে নেন তিনি।

দিলদারের জনপ্রিয়তা এতটাই তুঙ্গে ছিল যে, তাকে নায়ক করেই নির্মাণ করা হয়েছিল ‘আব্দুল্লাহ’ নামে একটি চলচ্চিত্র। তার অভিনীত অন্যান্য চলচ্চিত্রের মধ্যে ‘বেদের মেয়ে জোসনা’ ‘বিক্ষোভ’, ‘অন্তরে অন্তরে’, ‘কন্যাদান’, ‘চাওয়া থেকে পাওয়া’, ‘সুন্দর আলী জীবন সংসার’, ‘স্বপ্নের নায়ক’, ‘আনন্দ অশ্রু’, ‘শান্ত কেন মাস্তান’ ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য। অভিনয়ের জন্য স্বীকৃতিও পেয়েছেন দিলদার। সেরা কৌতুক অভিনেতা হিসেবে ২০০৩ সালে ‘তুমি শুধু আমার’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের সুবাদে দিলদার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন। দিলদারের শিক্ষাগত যোগ্যতা এইচএসসি। কৌতুক অভিনেতা দিলদারের বাড়ী চাঁদপুর সদর উপজেলার শাহতলী গ্রামে।

এদিকে মরহুমের ১৭ মত মৃত্যুবাষিকীতে তার ভাতিজা মোহাম্মাদ রাসেল পাটওয়ারী সবার নিকট সবাই দোয়া কামনা করছেন। এছাড়াও ঢাকার শারলিয়া পারিবারিক গোরস্থানের পাশ্বের মসজিদে মিলাদ ও দোয়া ও গুলশানে নিকেতন সোসাইটির বাসায় দোয়ার আয়োজন করা হয়েছে। জানা গেছে,করোনার কারনে মরহুম দিলদারের মৃত্যুবাষিকী গ্রামের বাড়ী শাহতলীতে কর্মসূচী গ্রহণ করা হয়নি। ঘরোয়া পরিবেশে ঢাকাতেই দোয়া ও মিলাদের আয়োজন করা হয়েছে।

আর পড়তে পারেন