মঙ্গলবার, ২২শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং

কুমিল্লা নগরীর সংরাইশে নির্মাণাধীন বাড়িঘর ভাংচুরের অভিযোগ কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৯
news-image

স্টাফ রিপোর্টারঃ
কুমিল্লা নগরীর ১৬ নং ওয়ার্ডে সংরাইশ এলাকায় গজু পোদ্দারের বাড়িতে হামলা চালিয়ে তিনটি নির্মাণাধীন ঘর ভাংচুর করেছে স্থানীয় কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর হোসেন বাবুল ওরফে বাবুল মুহুরীর লোকজন। এমন অভিযোগ করেছেন বাড়ির মালিক তামান্না বেগমের ছেলে সোহেব মেহরাজ অনন্ত।

রবিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) মধ্য রাত দেড় টায় ও ভোররাত সাড়ে ৪ টায় দু দফা এ হামলার ঘটনা ঘটে।
অনন্ত জানান, ৪ বছর আগে একটি হত্যাকান্ডের ঘটনার জের ধরে আমাকে ফাঁসিয়ে দেয় ওই ঘটনায়। পরে আমাদের সবার বাড়িঘর ভাংচুর করে আমরাসহ ৩৪টি পরিবারকে গ্রাম থেকে বিতাড়িত করেন বাবুল মুহুরী। কিছুদিন পূর্বে আমরা আমাদের জায়গায় নতুন ঘর নির্মাণ করতে শুরু করি। এরই ফলশ্রুতিতে রাত ও ভোররাতে কাউন্সিলর বাবুল মুহুরীর ৪০/৫০ জন সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে আমাদের বাড়িতে এসে দুদফা হামলা চালিয়ে সব কিছু ভাংচুর করে দেয়। পরে যাবার সময় আবার হুমকি দিয়ে গেছে , বাকি ঘরগুলোও ভাংচুর করা হবে। হামলাকারীরা হলেন কাউন্সিলর বাবুল মুহুরী, মোঃ হাবীব (সংরাইশ), জুয়েল (নবগ্রাম), ফারুক (সংরাইশ), নুরু মিয়া (সংরাইশ), মাহাবুব (সংরাইশ), জুয়েল (সংরাইশ), জাকির (সংরাইশ), উজ্জ্বল মিয়া (সংরাইশ), জাকারিয়া (সংরাইম), আসলাম মিয়া (সংরাইশ), জামাল মিয়া (নবগ্রাম), ইমরান (নবগ্রাম) ও শামীম (সংরাইশ) প্রমুখ ।

এ বিষয়ে সাবেক কাউন্সিলর ও ওয়ার্ড আ’লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন খোকন জানান, তিন বছর আগেও তাদের বাড়িঘর ভাংচুর হয়েছে। তিনবছর পর আবার তারা নতুন করে ঘরবাড়ি নিমার্ণ করতে গেলে ভোরে এ ভাংচুরের ঘটনা ঘটে।  যাদের বাড়িঘর ভাংচুর হইছে তারা বলছে  কাউন্সিলর বাবুলের লোকজন এ ঘটনা ঘটছে।

এ বিষয়ে কোতয়ালী থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মোঃ সালাহ উদ্দিন জানান, বাড়িঘর ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। আমরা বিষয়টি দেখছি।

এ বিষয়ে কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ারুল হক জানান, একটা অভিযোগ পেয়েছি। দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবো।

আর পড়তে পারেন