শনিবার, ১৪ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং

কুমিল্লা কর অঞ্চলে অক্টোবরেও রেকর্ড পরিমান আয়কর আদায়: লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৮২ কোটি, আদায় ১২৫ কোটি

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
নভেম্বর ৭, ২০১৯
news-image

শাহ ইমরানঃ
কর অঞ্চল কুমিল্লার অক্টোবর মাসেও জাতীয় রাজস্ব বোর্ড নির্ধারিত ৮২ কোটি টাকার লক্ষ্যমাত্রার স্থলে ১২৫ কোটি টাকা আয়কর ও ভ্রমণকর রাজস্ব আদায় হয়েছে। আদায়কৃত রাজস্ব লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৪৩ কোটি টাকা বেশি। বিগত সেপ্টেম্বর মাসেও জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে ৩০ কোটি টাকার মত বেশী আয়কর রাজস্ব আদায় হয়েছিলো।

গত ৪ অক্টোবর কর অঞ্চল কুমিল্লার কর কমিশনারের ময়নামতি সম্মেলন কক্ষে কর অঞ্চল কুমিল্লার কমিশনার এম এম ফজলুল হক আরিফের সভাপতিত্বে বর্তমান অর্থবর্ষের পঞ্চম নিয়মিত রাজস্ব সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় উপস্থিত ৬টি জেলার ২২টি আয়কর সার্কেলের ডেপুটি কমিশনার এবং রেঞ্জ কর্মকর্তাদের এই ধারাবাহিক সাফল্যের জন্য কর কমিশনার এম এম ফজলুল হক আরিফ ধন্যবাদ জানান।

সভায় জানানো হয়, উচ্চ আদালতে দীর্ঘ সময় যাবত অনিষ্পন্ন গুরুত্বপূর্ণ মামলা নিষ্পত্তির সক্রিয় তদারকী, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের যথাযথ পদায়ন, করদাতাদের সাথে নিবিড় যোগাযোগ, করবান্ধব সেবাবৃদ্ধিসহ কর ভবন কমপ্লেক্সের সংস্কার, মাসিক কর্মকর্তা প্রশিক্ষণ, মাসিক কর্মচারী প্রশিক্ষণ, ত্রৈমাসিক কাজের দিনভিত্তিক পরিকল্পনা, দৈনিক লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ, কমিশনারসহ উধ্বর্তন কর্মকর্তাদের ৬টি জেলার কর সার্কেলসমূহে নিয়মিত পরিদর্শন, শিল্পপ্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের উৎসে কর কর্তনে প্রশিক্ষণ, বকেয়া ও অগ্রিম আদায়ে ক্ষুদে বার্তার মাধ্যম মুঠোফোনে যোগাযোগ, নিরীক্ষা মামলাসমূহের দ্রুত নিষ্পত্তির মাধ্যমে সৃষ্ট দাবী দ্রুত আদায়সহ সম্প্রতি গৃহীত রাজস্ববান্ধব বহুমুখীগতিশীল কার্যক্রমের ফলে এ অভূতপূর্ব রেকর্ড আয়কর রাজস্ব আদায় সম্ভব হয়েছে।

এছাড়াও অক্টোবর মাসে ২২টি কর সার্কেলে আলোচ্য অর্থ বর্ষের রেকর্ড সংখ্যক নতুন করদাতা সনাক্তকৃত, সর্বোচ্চ সংখ্যক নিরীক্ষাযোগ্য আয়কর মামলা চিহ্নিত, সর্বোচ্চ সংখ্যক মামলা নিষ্পত্তিকৃত এবং সর্বাধিক পরিদর্শন কার্যক্রম বাস্তবায়িত। পরবর্তী নভেম্বর এবং ডিসেম্বরমাসগুলোতেও লক্ষ্যমাত্রার বেশী আদায়ের লক্ষ্যে ৬টি জেলার কর কার্যালয় সমূহে সুপরিকল্পিত কার্যক্রম বাস্তবায়নাধীন। সভায় কর কমিশনার করদাতাদের প্রতি সর্বদা কৃতজ্ঞতা জানাতে সকলকে অনুরোধ করেন।

সভায় জানানো হয় ৬টি জেলার সর্বোচ্চ এবং দীর্ঘ সময়ব্যাপী কর প্রদানকারী সম্মানিত করদাতাদের জাতীয়রাজস্ব বোর্ড হতে সম্মাননা প্রদান করা হচ্ছে। কর অঞ্চল কুমিল্লার কুমিল্লা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, চাঁদপুর, লক্ষ্নীপুর, নোয়াখালী ও ফেনী জেলাসমূহের সম্মানিত করদাতাদের সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠান কুমিল্লায় ১৩ নভেম্বরে অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়াও কুমিল্লার কান্দিরপাড়স্থ করভবন প্রাঙ্গনে ১৪ থেকে ১৭ নভেম্বর আয়কর মেলা ২০১৯ অনুষ্ঠিত হবে।

মেলায় সম্মানিত করদাতাগণ ২০১৯-২০ করবর্ষের আয়কর রিটার্ন জমা দিতে পারবেন, নতুন করদাতা গণ e-TIN নিবন্ধন ও বর্তমান করদাতাগণ পুন:নিবন্ধন করতে পারবেন, মেলায় স্থাপিত সোনালী, জনতা ও বেসিক ব্যাংকের বুথে আয়কর জমা দিতে পারবেন এবং করদাতাগণ কেরিটার্ন পূরণে সহায়তা করার জন্য মেলায় Help Desk থাকবে। এছাড়াও মেলায় মহিলা, মুক্তিযোদ্ধা, প্রতিবন্ধী ও প্রবীণ করদাতাদের জন্য পৃথক কাউন্টার থাকবে (কুমিল্লা)।

একই সাথে ব্রাহ্মণবাড়িয়া (১৬-১৯ নভেম্বর), চাঁদপুর (১৬-১৯ নভেম্বর), লক্ষ্নীপুর (১৬-১৯ নভেম্বর), নোয়াখালী (১৫-১৮ নভেম্বর) এবং ফেনী (১৫-১৭ নভেম্বর) জেলাসমূহেও কর মেলা অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়াও চৌদ্দগ্রাম, চৌমুহনী, আশুগঞ্জ এবং লাকসাম উপজেলায় যথাক্রমে ১৪-১৫, ১৮-১৯, ১৯-২০ ও ১৮-১৯ নভেম্বরে আয়কর মেলা আয়োজিত হচ্ছে। সকল জেলার আয়কর মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সাংসদ,বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, মেয়র, জেলা প্রশাসকসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত থাকবেন।

আর পড়তে পারেন