মঙ্গলবার, ২১শে জানুয়ারি, ২০২০ ইং

কুমিল্লায় জাল সনদ দিয়েই প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
ডিসেম্বর ৫, ২০১৯
news-image

 

স্টাফ রিপোর্টারঃ

কুমিল্লা সদর উপজেলার জগন্নাথপুর ইউনিয়নের জহুরুন্নেছা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জামশেদ চৌধুরীর বিরুদ্ধে জাল সনদে চাকরী নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের একজন সহকারী শিক্ষক কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন চলতি বছরের ৩০জুন।

অভিযোগ পাওয়ার পর তৎকালীন নির্বাহী অফিসার তদন্তের জন্য দায়িত্ব দেন আদর্শ সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার ইকবাল হাসানকে। দীর্ঘ ৬ মাস পার হতে চললেও তদন্তের কোনো প্রতিবেদন জমা দেননি ইকবাল হাসান। অভিযোগের এতদিন হয়ে গেলেও তদন্তের কোন প্রতিবেদন না দেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে ইকবাল হাসান বলেন, বিষয়টি শিক্ষা বোর্ড নিয়ন্ত্রিত। বোর্ডের নিয়মানুযায়ী কাজ করতে হয়, তবে দুয়েকদিনের মধ্যেই বোর্ড থেকে আবেদন পত্র সংগ্রহ করে আগামী সপ্তাহে প্রতিবেদন জমা দেবো। তদন্তে ঘটনার সত্যতার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি ঘটনার সত্যতা পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন।

জানা যায়, জহুরুন্নেছা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বর্তমান প্রধান শিক্ষকের এসএসসি এবং এইচএসসি পরীক্ষার সনদ দুটোই জাল। এ জাল সনদের মাধ্যমে চাকরী নিয়ে শিক্ষকতা পেশায় আছেন দীর্ঘদিন ধরে। চাকরীর এক পর্যায়ে তিনি সে স্কুলের প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পান। শিক্ষকতাকালীন সময়ে তার যোগ্যতা নিয়ে সন্দেহ হয় সহকর্মীদের। একপর্যায়ে জাল সনদের বিষয়টি জানতে পেরে সেসব জাল সনদের নমুনা কপিসহ নির্বাহী অফিসার এবং উপজেলা শিক্ষা অফিসার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

জাল সনদের বিষয়টি সম্পর্কে জামশেদ চৌধুরী মুঠোফোনে ঘটনার অস্বীকার করে বলেন, তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগটি সত্য নয়। এ বিষয়ে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার দেলোয়ার হোসেন মজুমদার কোনো বক্তব্য দিতে চাননি।কুমিল্লা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুল মান্নান বলেন, বিষয়টি আপনাদের (সাংবাদিকদের) মাধ্যমে জানলাম, সত্যতা যাচাই করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আর পড়তে পারেন