মঙ্গলবার, ২২শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং

কুমিল্লার কালিরবাজারে শিক্ষকের বেত্রাঘাত সহ্য করতে না পেরে শিক্ষার্থীর আত্মহ ত্যা, আত্মগোপনে শিক্ষক

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জুলাই ১৯, ২০১৯
news-image

 

স্টাফ রিপোর্টারঃ

কুমিল্লায় আদর্শ সদর উপজেলার কালির বাজার ইউপি উচ্চ বিদ্যালয়ের নাঈম হোসেন নামে অষ্টম শ্রেণীর এক শিক্ষার্থী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহ ত্যা করেছে।

বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলার বল্লভপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

আত্ম হননকারী নাঈমের সহপাঠিরা জানায়, বুধবার বিদ্যালয়ে ক্লাস চলাকালীন সময়ে নাঈমসহ আরো তিন শিক্ষার্থী কালির বাজারের সেলুন দোকানে চুল কাটতে যায়। চুল কেটে ক্লাসরুমে ফেরত এলে প্রধান শিক্ষক মিজানুর রহমানের কানে যায় বিষয়টি। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মিজানুর রহমান নাইমসহ ওই তিনজনকে বেত্রাঘাত করে। পরে নাঈমের অভিভাবককে বিদ্যালয়ে ডেকে এনে অপমান করে এবং নাঈমকে টিসি দিয়ে দেওয়ার হুমকি প্রদান করেন। প্রধান শিক্ষকের এমন হুমকি সহ্য করতে না পেরে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে নাঈম। নাঈম হোসেন পাশ্ববর্তী বল্লভপুর গ্রামের প্রবাসী আমির হোসেনের ছেলে। এ ঘটনায় এলাকায় তুমুল উত্তেজনা বিরাজ করছে। এদিকে ঘটনার পর থেকে বেত্রাঘাত করা প্রধান শিক্ষক মিজানুর রহমান আত্মগোপনে রয়েছেন বলে জানা গেছে। একাধিকবার ফোন করেও ওই শিক্ষকের মোবাইলে সংযোগ পাওয়া যায়নি।

এই বিষয়ে কুমিল্লা নাজিরা বাজার পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মাহমুদুল হাসান রুবেল বলেন, স্কুলে শাসন করায় সে আত্মহ ত্যা করেছে বলে জেনেছি, নিহত ওই শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ বিষয়ে থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করা হয়েছে।

আর পড়তে পারেন