মঙ্গলবার, ২২শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং

কুমিল্লার ইতর: ইতর কোন উপহাস নয়, ইতর ভালবাসার, মর্যাদার ও মূল্যবোধের অহংকার

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
সেপ্টেম্বর ৩, ২০১৯
news-image

 

অনলাইন ডেস্কঃ
স্কুল কলেজ জীবন থেকেই শোনে এসেছি কয়েকটি বিশেষ জেলার লোক কুমিল্লার লোকদের ‘ইতর’ বলে যা নিগেটিভ বা ঋণাত্মক অর্থে ব্যবহার হয়। গ্রেটার নোয়াখালীর লোকেরাই কুমিল্লার লোকদের ‘ইতর’ বলে বেশি । দুই প্রতিবেশি জেলার মাঝে কেন এই বিরোধ তা আমার বোধগম্য নয় । আমাদের স্কুল কলেজ জীবনে ফেনি,লক্ষীপুর জেলা ছিলো না । গ্রেটার নোয়াখালীর অংশ ছিলো। ব্রাম্মনবাড়িয়া, চাঁদপুরও কুমিল্লার সাব ডিভিশন ছিলো। এরশাদ সাহেব যখন ১৯ জেলাকে ৬৪ জেলা করলেন তখন চাঁদপুর, ব্রাম্মনবাড়িয়াও জেলার মর্যাদা পায়। আর গ্রেটার নোয়াখালী ভেঙে ফেনি ও লক্ষীপুর জেলা হয়। যদিও ফেনি,লক্ষীপুরের ভাষাও নোয়াখালীর ভাষা। ‘আঁই কিচ্চি’ টাইপ। কয়েকদিন আগে আমার এক বন্ধু বলেছে, নোয়াখালী, সিলেট আর চট্রগ্রামের ভাষা শোনলে ইচ্ছা করে মাতৃভাষার জন্য আবার যুদ্ধ করি। আমি আমার ‘ভেলভেট প্রতারণা ‘ লেখায় লিখেছিলাম,
” বাংলা ভাষাটা নোয়াখালী গিয়ে আহত হয়েছে, সিলেট গিয়ে নিহত হয়েছে,আর চট্রগ্রাম গিয়ে লাশটাই গায়েব হয়ে গেছে।”
আমি বিদেশে অনেক জেলার লোকের সঙ্গে চলেছি। বিদেশে জেলার চেয়ে দেশ বড় হয়ে দেখা দেয় । আমি বুকে হাত দিয়ে বলতে পারি আমার মাঝে আঞ্চলিকতা নেই। আমরা এক দেশের মানুষ। নোয়াখালীর অনেক লোকের সঙ্গে আমার অনেক আন্তরিক সম্পর্ক ছিলো দেশে বিদেশে। কিন্তু নোয়াখালীর লোকেরা যে কুমিল্লার লোকদের দুই চোখে দেখতে পারে না এটা প্রমাণিত সত্য। কিছু ব্যতিক্রম আছে তবে ব্যতিক্রম উদাহরন নয় ।
নোয়াখালীর লোকেরা বৃটিশ আমলে মহাত্মা গান্ধীর জনসভায় তার ছাগল চুরি করেছিলো । সেই থেকে ওই জায়গার নাম ‘ছাগলনাইয়া’। এটা দুনিয়ার সবাই জানে। এটা নিয়ে অনেকে নোয়াখলীর লোকদের খোঁটা দেয় ।তবু আমি বা আমরা তাদের আন্তরিকভাবেই ভালোবাসি।
এইতো গত বছরও নোয়াখালীর এক দম্পতির সঙ্গে আমার বিশেষ সখ্য ছিলো। তাদের সঙ্গে আমার ব্যক্তিগত সম্পর্ক ছিলো। ভদ্রলোকের স্ত্রী দেড় বছর আমার সব পোষ্টে কমেন্ট করতেন। গত বছর সেপ্টেম্বর মাসে আমার এক পোষ্টেে ভদ্রলোকের স্ত্রী কমেন্ট করেছিলেন। আমি কমেন্টের উত্তর দিয়েছিলাম। সকালে ঘুম থেকে উঠে দেখি ভদ্রমহিলার কমেন্ট টা নেই!!! তাদের বাড়ি নোয়াখালী হলেও থাকেন ঢাকা মোহাম্মদপুর।
আমি খুবই মন:ক্ষুন্ন হলাম। এটা কোন ধরনের ছোটলোকামি ? আমি জানতাম,তিনি তার স্ত্রীর পাসওয়ার্ড জানেন। তার স্ত্রী ঘুমিয়ে গেলে ওই আকামটা উনি করেন? আমার উত্তরটা তখন অপ্রাসঙ্গিক হয়ে যায়। ঘুম থেকে উঠে কমেন্টটা না দেখে আমার রক্ত মাথায় উঠে যায়। এটা কেমন ফাজলামি ? ভদ্রলোকের ফোন নাম্বার আমার কাছে ছিলো। আমি উত্তেজিত হয়ে তাকে কিছু এসএমএস করি।
১। ফাজলামি করার আর জায়গা পাও না? আমি কি তোমার বউয়ের সঙ্গে প্রেম করি নাকি ? আমার রুচি এতো খারাপ না। তোমার স্ত্রীর চেয়ে লক্ষ কোটিগুন বেশি সুন্দরী মেয়েরা করিমের পিছে পিছে ঘুরেছে এখনো ঘুরে। ফাজিল কোথাকার।
২। লেখাপড়া কিছু করছো? তোমার প্রোফাইলে দেখলাম জগা বাবুর কলেজে পড়ছো। তোমার মানসিকতা বড় হলেই আর কতো হবে?
এমন আরো কিছু কথা। রাতের বেলা তিনি আমাকে আক্রমণাত্মক অনেকগুলো এসএমএস করেছিলো। তার ভাষায় ” আমি নিমক হারাম, ( তারা স্বামী-স্ত্রী কয়েকদিন আমাকে খাবার দিয়ে গিয়েছিলো। সেই খাবারের খোটা!) তিনি আরো লিখেন
” তুই কুমিল্লার ইতর। আমি মানুষ চিনতে ভুল করেছিলাম।”
ইত্যাদি। সেই থেকে তাদের সঙ্গে আমার সম্পর্ক শেষ। যদিও তার স্ত্রী এক অসাধারণ মহৎপ্রাণ মহিলা। ফেনি, নোয়াখালীর মেয়েরা অনেক ভালো।
টাকার জোরে ওই ভালো আর সুন্দরী মেয়েটাকে সে বিয়ে করেছে। তার কোনো যোগ্যতাই নেই। না চেহারাচুরত সুন্দর, না হাইলি এডুকেটেড। যোগ্যতা শুধু তার বাপের অবৈধ টাকা আছে। বাড়ি,গাড়ি আছে। টাকা,বাড়ি, গাড়ি থাকলে অনেক মেয়েকেই কিনে নেয়া যায়। অনেক মেয়ের ফ্যামিলিও টাকার কাছে তাদের মেয়েকে বিক্রি করে দেয়। এসব কথা তার এলাকার লোকই আমাকে বলেছে। ছেলেটি তার স্ত্রীর ক্লাসমেট ছিলো। এখন দুবাই আছে। নাম মামুন হাসান আল রাজী। বাড়ি চাটখিলের রামদেবপুর গ্রামে।
কুমিল্লার মানুষকে ইতর কেন বলা হয় তার একটা ব্যাখ্যা দেয়া দরকার। বৃটিশ আ

মল থেকেই কুমিল্লার মানুষেরা খুব বুদ্ধিমান ছিল,তাই বৃটিশরা তাদেরকে বলতো ITOR ( ইতর)।
বৃটিশ শাসন আমলে অফিসের লোকজনের মধ্যে কুমিল্লার মানুষেরা ছিল খুবই দক্ষ ও বিচক্ষণ,তাই বৃটিশরা এই অঞ্চলের লোকদের মধ্যে চারটি গুন দেখতে পেয়েছিলেন,
Intellectuality =(বোধশক্তি)
Talent =(প্রতিভা)
Obedience =(বাধ্যতা)
Reliability =(বিশ্বাসযোগ্যতা)
এই চারটি শব্দের প্রথম অক্ষর দিয়ে তৈরি করে তাদেরকে ITOR বা ইতর বলে সম্বোধন করতো,(আর যারা মূর্খ তারা না জেনেই কুমিল্লার ইতর বলে ঠাট্টা বিদ্রূপ করে) তাছাড়া কুমিল্লার লোকেরা রাজনৈতিকভাবে সারা বিশ্বের সাথে যোগাযোগ স্থাপন করতো এবং সারা বিশ্বকে রাজনৈতিক সুতায় বদ্ধ করে সুসংগঠিত করতো তাদের মেধা ও বুদ্ধি দিয়ে,তাই [ ITOR ] ইতর কোন উপহাস নয়,ইতর ভালবাসার,মর্যাদার ও মূল্যবোধের অহংকার,

আর পড়তে পারেন