সোমবার, ১৮ই জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

অষ্টম শ্রেণি পাস দম্পতি এখন ‘বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক’, নিয়মিত করছেন অপারেশনও!

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
সেপ্টেম্বর ১০, ২০২০
news-image

ডেস্ক রিপোর্ট:

সিরাজগঞ্জে ভুয়া চিকিৎসক দম্পতিকে আটক করে কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় তাদের ৩০ হাজার টাকা জরিমানাও করা হয়। আটককৃতরা হলেন—সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার মাসুমপুর গ্রামের মো. মিল্টন তালুকদার (৩৮) এবং তার স্ত্রী মোছা. পাপিয়া খানম (৩৫)।

র‌্যাব-১২ এর কোম্পানি কমান্ডার এএসপি মুহাম্মদ মহিউদ্দিন মিরাজ জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সিরাজগঞ্জ শহরের নিউ মার্কেটের দোতলায় অবস্থিত পাইলস কেয়ার সেন্টারে অভিযান পরিচালনা করে তাদের আটক করা হয়। এসময় তার চেম্বার থেকে পাইলস চিকিৎসার জন্য বিজ্ঞাপন, বিজ্ঞাপনে ব্যবহৃত মোবাইল, রোগীদের তালিকা, চিকিৎসায় ব্যবহৃত মেডিকেল বেড, ওষুধ ও যন্ত্রপাতি উদ্ধার করা হয়।

মুহাম্মদ মহিউদ্দিন মিরাজ আরও জানান, আটককৃত ভুয়া চিকিৎসক মো. মিল্টন তালুকদার দীর্ঘদিন ধরে সিরাজগঞ্জ শহরে পাইলস কেয়ার সেন্টার খুলে বিভিন্ন ভুয়া আকর্ষণীয় বিজ্ঞাপন দিয়ে অসহায় রোগীদের চিকিৎসা ও অপারেশন করতেন। তার স্ত্রী মোছা. পাপিয়া খানম নারীদের চিকিৎসা করতেন। অথচ তাদের কারো কোনো ডাক্তারি সনদ ছিল না এবং তার স্ত্রী মোছা. পাপিয়া খানম অষ্টম শ্রেণি পাস।

পরবর্তীতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. মাসুদুর রহমান ভুয়া চিকিৎসক মিল্টন তালুকদারকে দেড় বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন এবং তার স্ত্রী মোছা. পাপিয়া খানমকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

আর পড়তে পারেন